বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নওগাঁর সাপাহারে আদিবাসী মঙ্গল টুডু নামে এক কৃষকের আম বাগানের গাছ কর্তনের অভিযোগ দুপচাঁচিয়ায় থানা পুলিশের অভিযানে ১০ জন গ্রেপ্তার নওগাঁয় প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়াই নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে তুলেনিয়ে ধর্ষণ বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় মুজিবনগর দিবস উদযাপিত নাট্যকার অমৃতলাল বসুর জন্মদিন আজ : নওগাঁ জেলাসহ বিভিন্ন উপজেলায় মোহাধুমধামে চৈত্র মাসে শুক্লপক্ষে বাসন্তী পূজা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত নওগাঁ ঐতিহ্যবাহী ৫ শ বছরের পুরনো রঘুনাথ মন্দিরে রামনবমী জন্ম উৎসব উপলক্ষে ভক্তদের ঢল নেমেছে কালাইয়ে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী-২০২৪ অনুষ্ঠিত বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় তীব্র গরমে অতিষ্ঠ জনজীবন কালাইয়ে প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী-২৪ উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নওগাঁর মহাদেবপুরে বিএনপি ও জামাতনেতা সহ ২১ জনের মনোনয় পত্র দাখিল বগুড়ায় ২২ কেজি গাঁজাসহ ২ জন গ্রেফতার তীব্র তাপদাহে অতিষ্ঠ কালাইয়ের জনগণ দুপচাঁচিয়ায় মাদক সেবনের সময় পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার ৫ শোক সংবাদ! শোক সংবাদ!! নওগাঁর আত্রাই উপজেলা বিএনপির নয় নেতাকর্মীকে কারাগারে প্রেরণ নওগাঁর ইয়াদ আলীর মোড়ে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় স্বামী-স্ত্রীর মর্মান্তিক মৃত্যু নওগাঁয় অতি দরিদ্রদের জন্য ৪০ দিনের কর্মসৃজন কর্মসূচিতে আড়াই কোটি টাকা বরাদ্দ পেয়েছে নওগাঁয় শশত্রুতার জের ধরে ঘাস মারা বিষ প্রয়োগ করে ৪ বিঘা জমির ধান পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ দুপচাঁচিয়ায় পল্লীপ্রাণী চিকিৎসকের পিতার ইন্তেকাল

চাকরিচ্যুতি ও বিভাগীয় শাস্তিতে কাজ হচ্ছে না প্রদীপকান্ডের পরও বেপরোয়া কতিপয় পুলিশ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩৮৮ বার পঠিত

CINN :-
বহিস্কৃত এসআই আকবর আলী, প্রদীপ কুমার ও লিয়াকত আলীসহ অভিযুক্ত কয়েকজন পুলিশ সদস্য।

সিলেটের বন্দরবাজার ফাঁড়িতে রায়হান হত্যা মামলার প্রধান আসামী এসআই আকবরকে ধরে পুলিশে সোপর্দ করেছে জনতা। এদিকে ঢাকায় ইয়াবাসহ ধরা পড়েছে পুলিশের আরেক এএসআই। রংপুরে ধর্ষণ মামলায় গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়। নারায়ণগঞ্জে ধর্ষণে সহায়তা করার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন আরেক পুলিশ সদস্য। কক্সবাজারের টেকনাফ থানার ওসি (বহিষ্কৃত) প্রদীপকাণ্ডের পর ইমেজ সংকটে পড়া পুলিশকে সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেয়া হলেও থমকে যাচ্ছে সেই চেষ্টা। থেমে নেই কতিপয় সদস্য। তারা দিন দিন বেপরোয়া হয়ে উঠছে। পুলিশ জনগণের বন্ধু। বিপদে পড়লে মানুষ যেখানে ছুটে যায়। অথচ সেই বাহিনীর কতিপয় কর্মকান্ডে গোটা বাহিনী অনেক সময় প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে পড়ে।
টেকনাফে পুলিশের গুলীতে মেজর (অব.) সিনহা হত্যার পর পুরো জেলার পুলিশকে বদলি এবং মাদকের ডোপ টেস্টে চিহ্নিত ডিএমপির ২৬ সদস্যের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করে চাকরিচ্যুতির প্রস্তুতি চললেও থামছে না অপরাধ প্রবণতা। শত চেষ্টা করেও ইতিবাচক ভাবমর্যাদা অক্ষুণ্ন রাখতে পারছে না পুলিশ বাহিনী। কতিপয় উচ্চাভিলাষী অসাধু কর্মকর্তার অনৈতিক কর্মকাণ্ড ও অনিয়ম দুর্নীতির কারণে পুলিশ সম্পর্কে জনমনে নেতিবাচক ধারণা ছড়িয়ে পড়ছে। এ অবস্থায় দায়ী পুলিশ সদস্যদের বিরুদ্ধে আরো কঠোর পদক্ষেপ নেওয়ার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন অপরাধ বিশ্লেষকরা।
এ বাহিনীর সুনাম যেনো ম্লান হয়ে যায় সে ব্যাপারে জোর চেষ্টা চালাচ্ছে পুলিশ সদর দফতর। দু’একজন সদস্যের জন্য পুরো বাহিনীর অর্জন যাতে বিনষ্ট না হয় সে বিষয়ে সদর দফতর দৃষ্টি রাখছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। আর এ কারণে পুলিশে বেশ কিছুদিন ধরেই বড় ধরনের রদবদল চলছে। কক্সবাজার জেলা থেকে পুরো বাহিনীকে বদলি করা হয়েছে। জেলার শীর্ষ কর্মকর্তা থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত ১ হাজার ৫০৭ জন পুলিশ সদস্যকে একযোগে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। পুলিশ বাহিনীতে একযোগে একক কোনো জেলায় এ ধরনের বিশাল বদলি নজিরবিহীন।
শুধু তাই নয়, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শীর্ষ কর্মকর্তারা। কক্সবাজারের ঘটনায় একজন ওসিসহ ১১ জন পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
সূত্র জানায়, পুলিশকে যাতে সাধারণ মানুষ বন্ধু হিসাবে মনে করে সেজন্য এসব চেষ্টা চলছে। পুলিশের ইমেজ রক্ষায় সদর দফতর এ সংক্রান্ত বার্তা এরই মধ্যে রেঞ্জ ডিআইজি ও জেলায় পুলিশ সুপারদের (এসপি) কাছে পাঠিয়েছে। এতে কনস্টেবল থেকে শুরু করে পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর), বিশেষ করে থানার দায়িত্বে থাকা অফিসার ইনচার্জদের (ওসি) নৈমিত্তিক কর্মকান্ড তীক্ষè নজরদারিতে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উচ্চাভিলাষী দুর্নীতিবাজ, বেপরোয়া ও নানা অপকর্মের সঙ্গে সম্পৃক্ত পুলিশ কর্মকর্তাদের দ্রুত চিহ্নিত করে তাদের সম্পর্কে পুলিশ সদর দফতরকে অবহিত করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি পুলিশ কর্মকর্তা ও সদস্যদের বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে প্রকাশিত অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিটি সংবাদ গুরুত্বের সঙ্গে খতিয়ে দেখার জোরালো নির্দেশনা রয়েছে। একই সঙ্গে পুলিশ ইন্টারনাল ওভারসাইট (পিআইও) ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। পুলিশের ভাবমর্যাদা রক্ষায় ঊর্ধ্বতনদের কাছে পাঠানো বিশেষ সতর্ক বার্তায় মাঠপর্যায়ের তদারকিতে কোনো ধরনের দুর্বলতা প্রকাশ পেলে তা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের অযোগ্যতা হিসেবে ধরা হবে এবং এ ব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধেও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করার প্রস্তুতি রয়েছে বলে হুঁশিয়ার করা হয়েছে। সুপারভাইজিং কর্মকর্তাদের সঠিক নজরদারির অভাবে ওসিসহ মাঠপর্যায়ের মুষ্টিমেয় পুলিশ সদস্য নানা অপকর্মে জড়িয়ে পড়ার সুযোগ পাচ্ছে বলে শীর্ষ প্রশাসন মনে করছে।
সর্বশেষ রোববার (৮ নবেম্বর) রাতে রাজধানীর যাত্রাবাড়ীর গেন্ডারিয়া গেণ্ডারিয়ার মিল ব্যারাক এলাকা থেকে ১৪৮টি ইয়াবাসহ মো. আজিজ নামের পুলিশের এক সহকারী উপপরিদর্শককে (এএসআই) গ্রেফতার করেছে করেছে র‌্যাব-১০-এর একটি দল। এদিকে সিলেট নগরের বন্দরবাজার পুলিশ ফাঁড়িতে নির্যাতনে রায়হান আহমদ হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত বরখাস্ত সেই এসআই আকবর হোসেন ভূঁইয়াকে গতকাল সোমবার কানাইঘাট সীমান্ত থেকে আটক করেছে স্থানীয় খাসিয়ারা। তারপর সিলেট জেলা পুলিশের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে।
মাদকের বিরুদ্ধে নিজেদের মধ্যেই শুদ্ধি অভিযানের অংশ হিসেবে দুই মাস আগে থেকে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট শুরু হয়। এর মধ্যে গত ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ২৬ জন ডোপ টেস্ট পজিটিভ হয়েছেন। পুলিশ সূত্র জানায়, দুই মাস আগে থেকে ডিএমপিতে পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট শুরু করা হয়। এর মধ্যে ১০৫ জনের মতো সন্দেহভাজন পুলিশ সদস্যের ডোপ টেস্ট করা হয়। এতে চারজন এসআই, তিনজন এএসআই, একজন নায়েক, ১৭ জন কনস্টেবলের ফলাফল পজিটিভ আসে। এরপর তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা করা হয়। এ ঘটনায় তখন ডিএমপি কমিশনার মুহা. শফিকুল ইসলাম বলেন, মাদকের বিষয়ে আমরা সন্দেহভাজন পুলিশ সদস্যদের ডোপ টেস্ট করিয়েছি। এর মধ্যে ২৬ জন সদস্যের পজিটিভ পেয়েছি। এই ২৬ জনকে চাকরিচ্যুত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এ সময় ডিএমপি কমিশনার আরো বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস, এভাবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারলে বাকিদের জন্য সুস্পষ্ট মেসেজ যাবে যে আমরা কাউকে ছাড় দেব না। আমাদের এই উদ্যোগের ফলে অনেকে ভালো হয়ে গেছে এবং এ রাস্তা থেকে ফিরে এসেছে। পুলিশ সদস্য যারা মাদকের সঙ্গে সম্পৃক্ত আছে বা মাদক ব্যবসায়ীকে সহযোগিতা করছে, সরাসরি তাদের বিরুদ্ধে মামলা নিয়ে গ্রেফতার করা হচ্ছে। এ বিষয়ে কোনো রকম শিথিলতা দেখানো হচ্ছে না।
৮ অক্টোবর নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় এক নারীর দায়ের করা ধর্ষণের মামলায় আব্দুল কুদ্দুছ নয়ন নামে এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। রাজারবাগ পুলিশ লাইনস থেকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতারের পর আদালতে পাঠানো হয়। গ্রেফতারকৃত আব্দুল কুদ্দুছ নয়ন রাজারবাগ পুলিশ লাইন্সে পরিবহন বিভাগে কনস্টেবল পদে কর্মরত ছিলেন। এর আগে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার মিজমিজি পশ্চিমপাড়া এলাকার বিউটিপার্লার ব্যবসায়ী এক নারী নয়নের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেন।
রংপুরের হারাগাছায় স্কুলছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণ মামলায় গোয়েন্দা পুলিশের এএসআই রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়। ৪ নবেম্বর দুপুরে জেলার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক স্নিগ্ধা রানী চক্রবর্তী এ আদেশ দেন। ২৩ অক্টোবর নবম শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করা হয়। গত ২৪ অক্টোবর নির্যাতিতার বাবা বাদী হয়ে দুজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাতদের আসামী করে হারাগাছ থানায় একটি মামলা করেন। পরে মামলাটি পিবি আইতে হস্তান্তর করা হয়। গত ২৮ অক্টোবর পুলিশ লাইন্স থেকে এএসআই রায়হানকে গ্রেফতার করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By cinn24.com
themesbazar24752150