রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৮:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
লালমনিরহাট বুড়িমারি সড়কে মৃত্যুর মিছিল, বেপরোয়া ট্রাকের নিয়ন্ত্রন নেই ট্রাফিক বিভাগের বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় জাতীয় বীমা দিবস পালিত বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় চোর চক্রের তিন সদস্য সহ গ্রেফতার চার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে আগুন থামলেও থামেনি এতিমদের আত্বনাত ও আহাজারি ১০ লক্ষাধীক টাকা ক্ষতি সাধন জয়পুরহাটের জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগারে নবাগত লাইব্রেরিয়ান যোগদান করেছেন ইসলামপুরে গণসংযোগ করেছে আবিদা সুলতানা যূথী ইসলামপুরে মিথ্যা মামলায় হয়রানি শিকার ভুক্ত ভুগি পরিবার শিক্ষকের হাতে শিক্ষক লাঞ্ছিত, তদন্তে কমিটি বেওয়ারিশ সেবা ফাউন্ডেশনের আয়োজনে অন্ধ হাফেজদের নিয়ে হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ২০২৪ এর রেজিষ্ট্রেশন চলছে নওগাঁয় ৫৫ বছর বয়সী কোহিনুরকে বাবার বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিল প্রকৌশলী মোয়াজ্জিম‌ হোসেন নওগাঁ দ্রুত বিচার পাওয়া জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে গ্রাম আদালত নওগাঁ গৌরশাহী মধ্যপাড়ায় আগুনে পুড়ে আলতাফ হোসেন নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে নব-নির্বাচিত এমপির সাথে সৌজন্য সাক্ষাত ও বোরো ধানবীজের স্কীম পরিদর্শন করছেন বিএডিসি বগুড়া জোনের উপ-পরিচালক নওগাঁ মহিলা আওয়ামী লীগের ৫৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালিত নওগাঁর আত্রাই নদী থেকে বালু তোলায় ফসলি জমি নদীগর্ভে বিলীন দেখার কেউ নেই নওগাঁ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের যৌথ অভিযানে চার প্রতিষ্ঠানকে ৫ হাজার চারশত টাকা জরিমানা কালাইয়ে জাতীয় বীমা দিবস ২০২৪ পালিত নওগাঁর একুশে পরিষদের সন্মানিত উপদেষ্টা অধ্যাপক নুরুল হক আর নেই নওগাঁয় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী মোস্তাফিজুর রহমান নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত নওগাঁ বাস্তবায়ন ইরিবোরো সমলয় চাষের প্রদর্শনী ও মাঠ দিবস পরিদর্শন করেন মতিউর রহমান

এএসআইয়ের গুলিতে প্রাণ গেল স্ত্রী-সন্তানসহ ৩ জনের

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১
  • ১১৪ বার পঠিত
কুষ্টিয়ায় প্রকাশ্যে গুলি করে স্ত্রী ও শিশু সন্তানসহ ৩ জনকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে পুলিশের এএসআই সৌমেন রায়ের বিরুদ্ধে। গতকাল রোববার বেলা ১১টার দিকে শহরের কাস্টমস মোড়ে এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। এ সময় অস্ত্রসহ সৌমেন রায়কে ধরে পুলিশে সোপর্দ করে জনতা। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আতিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। নিহতরা হলেন- আসমা খাতুন (৩০), তার ছেলে রবিন (৬) এবং আসমার প্রতিবেশী বিকাশকর্মী শাকিল (২৫)।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের কাস্টমস মোড়ের একটি তিনতলা ভবনের সামনে আসমা তার শিশুসন্তান রবিনের হাত ধরে দাঁড়িয়ে ছিলেন। পাশে দাঁড়ানো ছিলেন শাকিল। হঠাৎ সেখানে হাজির হন সৌমেন। তিনি প্রথমে আসমার মাথায় গুলি করেন। মুহূর্তেই আসমা লুটিয়ে পড়েন। এরপরই আসমার পাশে থাকা শাকিলের মাথায় গুলি করেন সৌমেন। শাকিলও লুটিয়ে পড়লে আতঙ্কে শিশু রবিন দৌড়ে পালাতে থাকে। এ সময় দৌড়ে রবিনকে ধরে মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে গুলি করেন সৌমেন। এই দৃশ্য দেখে উপস্থিত জনতা সৌমেনকে আটকের জন্য ধাওয়া দিলে তিনি ফাঁকা গুলি ছুড়ে দৌড়ে তিনতলা ভবনের ভেতরে ঢুকে যান।
খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সৌমেনকে আটক করে নিয়ে যায়। এ ছাড়া গুলিবিদ্ধ তিনজনকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পর চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালটির মর্গে পাঠানো হয়।
মর্গে গিয়ে দেখা গেছে, আসমার মা হাসিনা ও ছোট ভাইসহ স্বজনরা আহাজারি করছেন। ঘটনাস্থলে বিপুল মানুষ জমায়েত হলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) মোতায়েন করা হয়।
জানা গেছে, নিহত আসমার বাড়ি কুষ্টিয়ার কুমারখালীর নাতুরিয়া গ্রামে। শিশুসন্তান রবিনকে নিয়ে তিনি কুষ্টিয়া শহরে বাবার বাড়িতে থাকতেন। শাকিল বিকাশের এজেন্ট হিসেবে কাজ করতেন। তার বাড়িও কুমারখালীর নাতুরিয়া গ্রামে। তবে সৌমেনের বাড়ি মাগুরায় বলে জানা গেছে। অতিসম্প্রতি কুষ্টিয়া থেকে বদলি হয়ে তিনি খুলনার ফুলতলা থানায় যোগ দিয়েছিলেন।
পুলিশ ও স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, সৌমেন রায় সম্প্রতি কুষ্টিয়া থেকে খুলনার ফুলতলা থানায় বদলি হয়েছেন। তিনি কর্মস্থল থেকে ছুটি না নিয়েই কুষ্টিয়ায় যান। আসমা ছিলেন সৌমেনের দ্বিতীয় স্ত্রী। আসমার প্রথম পক্ষের সন্তান রবিন। আর নিহত বিকাশ এজেন্ট শাকিল আসমার প্রতিবেশী হলেও তাদের দুজনের মধ্যে ‘ঘনিষ্ঠ কোনো সম্পর্ক’ ছিল বলে ধারণা করছে পুলিশ।

এদিকে আসমার পরিবার জানায়, আসমার সঙ্গে মাঝেমধ্যে ফোনে গল্প করতেন শাকিল।

আসমার ভাই হাসান জানান, পাঁচ বছর আগে সৌমেনের সঙ্গে আসমার বিয়ে হয়। এর আগে আসমার দুই বিয়ে হয়েছিল। রবিন আসমার দ্বিতীয় স্বামীর সন্তান।
এদিকে রোববার বিকালে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে লাশগুলোর ময়নাতদন্ত করা হয়। এ প্রসঙ্গে হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার (আরএমও) তাপস কুমার সরকার বলেন, তিন জনকেই দুটি করে ছয়টি গুলি করা হয়েছে। প্রত্যেকের মাথায় কাছ থেকে গুলি করা হয়েছে।
কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. আতিকুল ইসলাম সময়ের আলোকে বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে সৌমেন নিজেই এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে সৌমেনকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। শাকিল ও আসমার মধ্যে ঠিক কী ধরনের সম্পর্ক ছিল, তা পরিষ্কারভাবে এখনও জানা যায়নি। কেউ বলছেন, সৌমেনের সঙ্গে বিয়ের আগে শাকিলের সঙ্গে বিয়ে হয়েছিল আসমার। আবার কেউ বলছেন আসমার সঙ্গে শাকিলের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। তবে এ বিষয়ে গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত পুলিশ নিশ্চিত হতে পারেনি। এ ছাড়া হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত অস্ত্রটি অফিসিয়াল কি না, তাও জানা যায়নি। বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশ।
এ প্রসঙ্গে খুলনার পুলিশ সুপার (এসপি) মাহবুব হাসান জানান, শিশুসহ তিন জনকে গুলি করে হত্যায় অভিযুক্ত খুলনার ফুলতলা থানার এএসআই সৌমেন রায় কর্মস্থল থেকে ছুটি না নিয়েই কুষ্টিয়ায় যান। তিনি জানান, ফুলতলা থানার পাশে তাজপুরে সৌমেন প্রথম স্ত্রী লাকী রায় ও দুই সন্তানসহ বসবাস করতেন। ঘটনা জানার পর লাকী রায়ের সঙ্গে ফুলতলা থানা পুলিশ কথা বলেছে। বিষয়টি আরও ভালোভাবে খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

পুলিশ সুপার বলেন, সৌমেনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এরই মধ্যে তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় খুলনা রেঞ্জ থেকে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By cinn24.com
themesbazar24752150