শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ০৯:০৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
নওগাঁর একুশে পরিষদের সন্মানিত উপদেষ্টা অধ্যাপক নুরুল হক আর নেই নওগাঁয় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামী মোস্তাফিজুর রহমান নামে এক ব্যক্তির মৃত্যুদন্ড দিয়েছে আদালত নওগাঁ বাস্তবায়ন ইরিবোরো সমলয় চাষের প্রদর্শনী ও মাঠ দিবস পরিদর্শন করেন মতিউর রহমান গাইবান্ধায় হয়ে গেল লোকজ সাংস্কৃতিক উৎসব মানবসেবায় এগিয়ে এলেন মধুপুর উপজেলা প্রেসক্লাব দুপচাঁচিয়া থানা পুলিশের অভিযানে নকল স্বর্ণে মূর্তির আসামি সহ পাঁচজন গ্রেফতার রায়কালী উন্নয়ন ফোরামের ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পেইন কালাইয়ে শিক্ষকের পিতার ইন্তেকালে শোক প্রকাশ নওগাঁ ব্রিটিশ আমলের ২০০ বছরের পুরাতন মসজিদের সন্ধান মিলেছে হাতিমন্ডালা গ্রামে নওগাঁ পাওয়ার টিলার এর ধাক্কায় জিল্লুর রহমান নামে এক বৃদ্ধের মর্মান্তিক মৃত্যু ভারতবর্ষের প্রথম রাষ্ট্রপতি ড, রাজেন্দ্র প্রসাদ এর প্রয়াণ দিবস আজঃ নওগাঁ ধামইরহাটে যুবলীগের সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত সুন্দরগঞ্জে চার পুলিশ হত্যা দিবস পালিত নওগাঁ প্রাইভেট কার থেকে ৭২ কেজি গাঁজাসহ মুনির হোসেন নামে এক জন গ্রেপ্তার বগুড়ায় গাঁজাসহ এক মাদক কারবারি আটক জয়পুরহাটের এসপি নুরে আলম বিপিএম- পদক পেলেন চট্টগ্রাম চকবাজার থানা এলাকায় চাঁদাবাজির মহোৎসবের নেপথ্যে নায়ক থানার অবৈধ ক্যাশিয়ার বগুড়ার দুপচাঁচিয়ায় জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত কালাইয়ে ব্র্যাকের উদ্যোগে বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে গণনাটক অনুষ্ঠিত কালীগঞ্জে স্ত্রীর স্বীকৃতি পেতে পুলিশ সদস্যের বাড়িতে কলেজ ছাত্রীর অনশন

বৈধ সংযোগের চেয়ে অবৈধই বেশী বছরে চুরি হচ্ছে আড়াই হাজার কোটি টাকার গ্যাস

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৮ আগস্ট, ২০২১
  • ১০৪ বার পঠিত

দেশে অবৈধ গ্যাস সংযোগের সঠিক হিসাব কারো কাছেই নেই। বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) হিসাবে বছরে প্রায় আড়াই হাজার কোটি টাকার গ্যাস চুরি হচ্ছে।
বিশেষজ্ঞরা জানান, বৈধ সংযোগের থেকে অবৈধ সংযোগের সংখ্যাই বেশি। আর সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মদদেই অবৈধ সংযোগ দেয়া হয়। রাজধানীর করাইল বস্তিতে খাতা কলমে তিতাসের বৈধ সংযোগ না থাকলেও প্রতিটি ঘরেই জ্বলছে গ্যাসের চুলা। শুধু বাসা নয় বস্তির দোকান আর রেস্তোরাগুলোতেও অবৈধ চুলা জ্বলে দিনে ১৬ থেকে ১৮ ঘণ্টা। অথচ গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের তথ্য অনুযায়ী এই বস্তিতে গ্যাসের কোন বৈধ সংযোগ-ই নেই।
ব্যবহারকারীরা বলছেন, তিতাসের লোকজনের মাধ্যমেই পাওয়া যায় গ্যাস সংযোগ। অবৈধ বাণিজ্য এখানে যেন প্রাতিষ্ঠানিক রূপ নিয়েছে। চোরা লাইনে এক চুলার জন্য মাসে দিতে হয় ৭০০ টাকা। দোকানে সারাদিন চুলা জ্বললেও মাসে বিল ১৮০০-২১০০ টাকা আর রেস্তোরায় ৯০০০-১২০০০ টাকা।
গ্যাস আইনে বলা আাছে, কোন ব্যক্তি গ্যাস সঞ্চালন, বিতরণ এবং সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের মালিকানাধীন পাইপলাইন, মিটার, রেগুলেটর বা অন্য কোন সামগ্রী চুরি বা ইচ্ছাকৃতভাবে উহাদের কোন ক্ষতিসাধন করিলে, তিনি অনধিক ১ (এক) বৎসর কারাদন্ডে বা অনধিক ১ (এক) এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে বা উভয় দন্ডে দন্ডনীয় হইবেন এবং একই অপরাধের পুনরাবৃত্তি ঘটিলে তিনি অন্যুন ১ (এক) বৎসর এবং অনধিক ৩ (তিন) বৎসর কারাদন্ডে এবং অনধিক ২ (দুই) লক্ষ টাকা অর্থদন্ডে দন্ডনীয় হইবেন।
দোকানের মালিক জানান, গ্যাসের চুলার বিল দিনেরটা দিন পরিশোধ করতে হয়। দোকানের চুলার জন্য প্রতিদিন ৭০টাকা দিতে হয়। অপর এক গৃহিণী জানান, বাসায় রান্নার কাজে ব্যবহৃত প্রতিটি চুলার জন্য ৭০০ টাকা দিতে হয়।
কড়াইল বস্তির গৃহস্তলীর প্রায় ১০ হাজার চুলা, দোকান-রেস্তোরার ১ হাজার ৫০০ চুলা থেকে মাসে বিল ওঠে কম-বেশি আড়াই থেকে তিন কোটি টাকা। যার এক পয়সাও জমা হয় না সরকারি কোষাগারে। তাহলে এই টাকা যায় কোথায় ?
রাজধানীতে বস্তির পাশাপাশি বহু এপার্টমেন্ট আর কারখানা চলছে অবৈধ সংযোগে। যার হিসেব নেই সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর কাছে। তবে সম্প্রতি নারায়নগঞ্জে অভিযানে গিয়ে অবাক করা তথ্য পায় তিতাস। দুটি এলাকায় বৈধ সংযোগের থেকেও কয়েকগুণ বেশি অবৈধ সংযোগ পায় তারা। এদিকে অবৈধ সংযোগের হিসেব না জানলেও ক্ষতির হিসাব জানে বিইআরসি।
জ্বালানি বিশেষজ্ঞ এবং কনজ্যুমার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) জ্বালানি বিষয়ক একজন কর্মকর্তা বলেন, অবিরত চুরি অব্যাহত রেখেছে। আজকে বছরের পর বছর ধরে শুনছি অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হচ্ছে। অবৈধ সংযোগ তা হলে আছে কতো? একদিকে অবৈধ সংযোগ দেয়া হয়। অপরদিকে সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। বছরে আড়াই হাজার কোটি টাকার গ্যাস চুরি হয় আমরা গণ-শুনানিতে বলেছি। প্রাকৃতিক সম্পদ রক্ষায় গ্যাস সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর বিরুদ্ধে সরকারকে আরও কঠোর হওয়ার আহ্বান বিশেষজ্ঞদের।
গত ৩০জুন গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকায় একটি পোশাক কারখানা কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সোয়া চার কোটি টাকা মূল্যের গ্যাস চুরির অভিযোগ পাওয়া গেছে। দুপুরে অভিযান চালিয়ে ওই কারখানার অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ। এ ঘটনায় কারখানার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজারসহ দুজনকে আটক করা হয়েছে। আটকরা হলো কারখানার জেনারেল ম্যানেজার বিনয় চন্দ্র ও তার গাড়িচালক।
তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলার পল্লীবিদ্যুৎ এলাকার আয়মন টেক্সটাইল অ্যান্ড হোসিয়ারি লিমিটেড নামে তৈরি পোশাক কারখানার বিরুদ্ধে এ গ্যাস চুরির অভিযোগ উঠেছে। ওই কারখানার বিল বকেয়া থাকায় প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। পরে তিতাস গ্যাস বিপণন এবং বিতরণের চন্দ্রা জোনাল অফিসের কিছু অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যোগসাজসে ওই কারখানা কর্তৃপক্ষ লাইন বাইপাসের মাধ্যমে অবৈধভাবে গ্যাস সংযোগ দেয়।
এভাবে ওই কারখানা কর্তৃপক্ষ দীর্ঘদিন ধরে গ্যাস চুরি করে কার্যক্রম পরিচালনা করে। এটি জানাজানি হলে বিষয়টি তিতাস গ্যাসের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নজরে আসে। আজ বুধবার দুপুরে ওই কারখানার অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করতে অভিযানে নামে চন্দ্রা জোনাল অফিস। এ উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দিলে ওই কারখানার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার বিনয় চন্দ্র দাস ও তার গাড়িচালককে আটক করা হয়। পরে আটককৃতদের কালিয়াকৈর থানা পুলিশে সোর্পদ করা হয়েছে।
অবৈধ সংযোগ নিয়ে কারখানা কর্তৃপক্ষ প্রায় সোয়া ৪ কোটি টাকা মূল্যের গ্যাস চুরি করেছে বলে দাবি তিতাস গ্যাসের চন্দ্রা জোনাল অফিস কর্তৃপক্ষের। এ ঘটনায় কালিয়াকৈর থানায় মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।
তিতাস গ্যাস বিপণন এবং বিতরণের চন্দ্রা জোনাল অফিসের ব্যবস্থাপক মামুনুর রশিদ জানান, প্রায় সাড়ে তিন বছর আগে ওই কারখানার বিল বকেয়া থাকায় সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হলে অবৈধভাবে লাইন বাইপাস করে গ্যাস সংযোগ দেয় কারখানা কর্তৃপক্ষ। এতে প্রায় সোয়া চার কোটি টাকা মূল্যের গ্যাস ব্যবহার করেছে। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার সংযোগের বিষয়টি নিশ্চিত হলে বুধবার সকাল থেকে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দিলে ওই কারখানার ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার ও তার গাড়িচালককে আটক করে কালিয়াকৈর থানা পুলিশে সোর্পদ করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By cinn24.com
themesbazar24752150